চন্দনাইশ পৌরসভা নির্বাচনে বিজয়ী কাউন্সিলররা

প্রকাশিত: 12:14 PM, February 16, 2021
চন্দনাইশ প্রতিনিধিঃ
চন্দনাইশ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মু. মাহবুবুল আলম খোকা নৌকা প্রতীক নিয়ে ১৫ হাজার ৯শ ৫৮ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় মেয়াদে পৌর মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া তিনজন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও ৯ জন সাধারণ কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন।
১৪ ফেব্রুয়ারি রাত ৯ টার দিকে বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমতিয়াজ হোসেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার মিনহাজুল ইসলাম।
নির্বাচন কমিশন ঘোষিত বেসরকারি ফলাফল মতে, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১, ২, ৩নং ওয়ার্ডে শিরিন আকতার আনারস প্রতিকে ৩৫৬৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী  বর্তমান কাউন্সিলর খোরশেদা বেগম (চশমা) প্রতিকে পেয়েছেন ২৪০৮ ভোট ৪, ৫, ৬নং ওয়ার্ডে কহিনুর আকতার চশমা প্রতিকে ১৭১৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সুমি বড়ুয়া জবা ফুল প্রতিকে পেয়েছেন ১৩১৯ ভোট। ৭, ৮, ৯নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর হাছনারা বেগম আনারস প্রতিকে ২৯৩৫ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তাহেরা বেগম চৌং জবাফুল প্রতিকে পেয়েছেন ২২৪৪ ভোট।
কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ডে মোঃ শাহেদুল ইসলাম ডালিম প্রতিকে ৯১৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান কাউন্সিলর অজয় দত্ত ব্লাকবোর্ড প্রতিকে পেয়েছেন ৫৭৮ ভোট। ২নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর মো. নুরুল ইসলাম টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে ৯০৮ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ ইউছুফ পাঞ্জাবি প্রতিকে পেয়েছেন ৭৩৬ ভোট। ৩নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর মোহাং হেলাল উদ্দিন চৌং পাঞ্জাবি প্রতিকে ৮৩৫ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী মো. আনোয়ার হোসেন উটপাখি প্রতিকে পেয়েছেন ৭৪৫ ভোট। ৪নং ওয়ার্ডে মো. মাসুদুর রহমান উটপাখি প্রতিকে ৮০৮ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান কাউন্সিলর মো. নাসির উদ্দীন ডালিম প্রতিকে পেয়েছেন ৫০৬ ভোট। ৫নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর মোহাম্মদ শাহ আলম টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে ৭৭৬ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোহাম্মদ সেলিম ডালিম প্রতিকে পেয়েছেন ৫৬৬ ভোট। ৬নং ওয়ার্ডে মোরশেদুল আলম ডালিম প্রতিকে ১০৪৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. মাহবুবুল কবির পানির বোতল প্রতিকে পেয়েছেন ৫৬৫ ভোট। ৭নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর মোহা. মোজাম্মেল হক চৌধুরী টেবিল ল্যাম্প প্রতিকে ৯৪২ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. আবু ছাদেক ব্লাকবোর্ড প্রতিকে পেয়েছেন ৭০৩ ভোট। ৮নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর মোহাম্মদ আবু তৈয়ব ডালিম প্রতিকে ১৪২৮ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. আব্দুর রহিম উটপাখি প্রতিকে পেয়েছেন ৯৫৫ ভোট। ৯ নং ওয়ার্ডে মোহাম্মদ লোকমান হাকিম গাজর প্রতিকে ৯২০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান কাউন্সিলর মো. খোরশেদ আলম সবুজ ব্লাকবোর্ড প্রতিকে পেয়েছেন ৫১৫ ভোট।
চন্দনাইশ পৌরসভা নির্বাচনে ৯টি ওয়ার্ডে ১৬টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে স্থায়ী ৭৮টি ও অস্থায়ী ৫টি বুথ ছিল। পর্যাপ্ত নিরাপত্তার পাশাপাশি প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার ও প্রতিটি বুথে একজন করে সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার দায়িত্ব পালন করেন। একইভাবে ১৭৪ জন পোলিং এজেন্ট দায়িত্ব পালন করেন। এবারের পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে চারজন, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৯ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।
১৭.০৮ বর্গ কি.মি. আয়তনের চন্দনাইশ পৌরসভায় মোট ভোটার- ২৮ হাজার ৯ শ ৯৭ জন, এর মধ্যে পুরুষ ভোটার- ১৫ হাজার ১ শ ৯৯ জন ও মহিলা ভোটার ১৩ হাজার ৭ শ ৯৮ জন।
সার্বিকভাবে ৪শ জন পুলিশ, ২ প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাব এর ৪টি টিম, ১৩৯ জন আনসার ভিডিপি সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিল। একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের পাশাপাশি ৯টি ওয়ার্ডে ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত মাঠে দায়িত্ব পালন করেছেন।