১১,১২,১৩ ও ২৩নং ওয়ার্ডে মেয়রপ্রার্থী এম এ মতিনের গণসংযোগ

প্রকাশিত: 12:18 AM, January 13, 2021

চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ

জলাবদ্ধতা নিরসন, স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে- এম.এ মতিন

বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত মেয়রপ্রার্থী মাওলানা এম এ মতিন বলেছেন, ২৩, ১১,১২ ও ১৩ নং ওয়ার্ডে রয়েছে দেশখ্যাত বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোর অফিসসহ অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা। নগরীতে আলাদা গুরুত্ব রয়েছে এ ওয়ার্ডগুলোর। মাদক, চাঁদাবাজি, জলাবদ্ধতা ও পানি সঙ্কটে ম্লান হয়ে যাচ্ছে এর গুরুত্ব। তিনি বলেন-নির্বাচিত হলে এলাকার জলাবদ্ধতা, মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, অসামাজিক কার্যকলাপ, ঘিঞ্জি ও ভঙ্গুর রাস্তাঘাটসহ সমস্যাগুলো সমাধান করতে চেষ্টা করব। আজ ১২ জানুয়ারি মঙ্গলবার নগরীর ১১, ১২, ১৩ ও ২৩ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন স্পটে গণসংযোগ ও পথসভায় উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী মাওলানা এম.এ মতিন। তিনি আরো বলেন, নালাগুলো ভরাট ও বেদখলে চলে গেছে। অনেক জায়গায় প্রধান সড়কের সাথে সংযোগ রাস্তা নেই। মানসম্মত পর্যাপ্ত স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা না থাকায় শিক্ষার মান ও পরিবেশ দিন দিন অবনতি হচ্ছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে সুপেয় পানির বড় সঙ্কট। জলাবদ্ধতার কারণে বেড়ে যাচ্ছে মশার উপদ্রব। ওয়ার্ডগুলোতে গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় ফুট ওভারব্রীজ না থাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা ক্রমশ: বাড়ছে। যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা জমে থাকায় মানুষের ভোগান্তিও বেড়ে চলছে। এলাকায় ছিনতাইকারীদের উপদ্রব রয়েছে সবচেয়ে বেশি। তিনি বলেন, আগামী ২৭ জানুয়ারি চসিক নির্বাচনে মোমবাতি প্রতীকে রায় দিয়ে যদি জনগণ জয়যুক্ত করে তাহলে এলাকার মানুষের পরামর্শের ভিত্তিতে উল্লিখিত সমস্যার সমাধান করব। এই এলাকার বাসিন্দারা শিক্ষা এবং স্বাস্থ্য খাতে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। জলাবদ্ধতা এলাকাবাসীকে অস্থির করে তোলে। সড়কগুলো যদি আরো প্রশস্ত করা যেত তাহলে যানজটের দুর্বিষহ যন্ত্রণা অনেকটা দূর হতো। নানা সমস্যায় ডুবে থাকা ওয়ার্ডটির হৃত গৌরব ফিরিয়ে আনতে তিনি আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জনগণকে মোমবাতি প্রতীকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান। গণসংযোগে উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক স.উ.ম আবদুস সামাদ, মাওলানা ওবাইদুল মোস্তফা কদমরসূলী, মাওলানা আশরাফ হোসাইন, মাওলানা গিয়াস উদ্দিন নেজামী, মুহাম্মদ হাবিবুল মোস্তফা সিদ্দিকী, আলমগীর বঈদী, জামাল উদ্দীন, আবু তৈয়ব চৌধূরী, মো: মহিউদ্দীন, আমির হোসেন, জহির রায়হান, শাহজাহান বাদশা, এইচ এম বেলাল, রাশেদুল ইসলাম ফারুকী, মুহাম্মদ ওসমান, শাহেদুল ইসলাম, আরিফুর রহমান, তৌহিদুল আলম, নুরুল আজিম আলী হোসাইন, মোবারক আলী, সাজ্জাদ হোসাইন, নিজাম উদ্দীন প্রমুখ।