ছাত্রসেনা হাটহাজারী পৌরসভার অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন

প্রকাশিত: 11:49 PM, November 20, 2020

হাটহাজারী প্রতিনিধিঃ

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা হাটহাজারী পৌরসভার অভিষেক অনুষ্ঠান এবং পবিত্র ঈদে মীলাদুন্নবী (দঃ) ও ফাতেহায়ে ইয়াজদাহুম শীর্ষক সেমিনার গত জুমাবার হাটহাজারী বাসষ্ট্যান্ডস্থ “হোটেল আল-জামান” কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত হয়।

পৌরসভা ছাত্রসেনার সভাপতি মহি উদ্দিন মহিন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন- বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক পীরজাদা গোলামুর রহমান আশরফ শাহ (মুঃজিঃআঃ)। উদ্বোধক ছিলেন ইসলামী ফ্রন্ট হাটহাজারী পৌরসভার সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব হারুন সওদাগর সাহেব। প্রধান বক্তা ছিলেন ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম উত্তর জেলার তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক রবিউল হোসেন সুমন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ইসলামী ফ্রন্ট হাটহাজারী উপজেলার সাধারণ সম্পাদক সেকান্দর মিয়া,উপজেলা ইসলামী ফ্রন্টের সাবেক গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা সৈয়দ আবু তালেব কাদেরী , ইসলামী ফ্রন্ট হাটহাজারী পৌরসভার সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা রফিকুল ইসলাম কাদেরী, ইসলামী ফ্রন্ট পৌরসভার আইন বিষয়ক সম্পাদক  সাইফুল ইসলাম সাইফু, যুবসেনা হাটহাজারী উপজেলার সাধারণ সম্পাদক যুবনেতা এস. এম.মামুনুর রশীদ জাবের, যুবসেনা পৌরসভার সভাপতি এম ছগীর আহমদ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি গোলামুর রহমান আশরফ শাহ বলেন, রাসুলে পাক (দঃ)’র আগমন বিশ্ববাসির জন্য নিয়ামত। তাঁর আগমনে আইয়্যামে জাহিলিয়াতের যুগ সোনালি যুগে পরিণত হয়েছিল। সকল প্রকার অন্যায়-অনাচার দূরীভূত হয়েছিল। কিন্তু প্রায় সাড়ে চৌদ্দশত বৎসর পর আজকের সমাজ আইয়্যামে জাহিলিয়াতের যুগকে হার মানাচ্ছে। সকল প্রকার অন্যায় অত্যাচার সমাজকে গ্রাস করে আছে। এহেন পরিস্থিতি থেকে উত্তোলনের একমাত্র পথ হচ্ছে সমাজের সর্বক্ষেত্রে বিশ্ব নবী (দঃ) এর আদর্শ অনুসরণ করা।
বক্তারা আরও বলেন, মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রাণাধিক প্রিয় রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে ফ্রান্স যে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে,তা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার উস্কানি দিচ্ছে।
সম্প্রতি চন্দনাইশের দোহাজারী পৌরসভার বারুদখানা ওয়ার্ড ছাত্রসেনার সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মুহাম্মদ সাবেদুল ইসলাম সাজ্জাদ এর হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারে প্রশাসনের বিলম্বের তীব্র নিন্দা এবং খুনিদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করতে প্রশাসনের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর এবং সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ মুহাম্মদ সোলায়মানের যৌথ সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন- ছাত্রসেনা পৌরসভার সাবেক সভাপতি ফয়সাল করিম চৌধুরী, একরামুল হক,মুহাম্মদ ইব্রাহিম, হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ ইয়াকুব, সাহেদুল আলম,সাবেক সিনিয়র সদস্য নাছির উদ্দিন রুবেল, নাছির উদ্দিন,মুহাম্মদ আবদুল আলীম কাদেরী, মুহাম্মদ জুনায়েদ কাদেরী, সৈয়দ মুহাম্মদ শহিদুল্লাহ, সাইফুর রহমান, হাফেজ মারুফুর রহমান প্রমুখ। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন মুহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন,রাশেদুল ইসলাম, আবদুল্লাহ আল মামুন,হাফেজ শাহেদ উদ্দিন, কুতুব উদ্দিন জিষার,মুহাম্মদ হান্নান,সাহেদুল ইসলাম মুন্না,হাফেজ আবু তাহের,এসএম জাহেদ সরোয়ার, মুঈন উদ্দিন ও আবদুল কাইয়ুম প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের শেষে মিলাদ কিয়াম ও মোনাজাত করে দেশ ও জাতির জন্য দোয়া করা হয়।